June 27, 2022, 3:36 pm

নারী নেত্রী লিলি বেগম এক মাসেও উদ্ধার হয়নি, প্রতিবাদে এলাকায় মানববন্ধন

সাংবাদিক বামঃ
  • পোস্ট হয়েছেঃ শনিবার, ডিসেম্বর ১১, ২০২১
  • 64 পড়া হয়েছেঃ

নিজস্ব প্রতিবেদক, গোয়ালন্দঃ রাজবাড়ীর গোয়ালন্দে স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা মুক্তি মহিলা সমিতির (এমএমএস) কার্যনির্বাহী কমিটির সহসভাপতি, নারী নেত্রী লিলি বেগম (৪০) নিখোঁজের এক মাস পার হলেও এখনো তাঁর সন্ধান পাওয়া যায়নি। সে দৌলতদিয়া বাজার পূর্ব পাড়ার বাসিন্দা। তার গ্রামের বাড়ি জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার পূর্বআমপাড়া।

তাঁকে উদ্ধারের দাবীতে শনিবার দুপুরে দৌলতদিয়া রেলষ্টেশন এলাকায় শনিবার (১১ ডিসেম্বর) বেলা সাড়ে ১১টা থেকে দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়। মুক্তি মহিলা সমিতির ব্যানারে সংস্থাটির শতাধিক কর্মীসহ চাইল্ড ক্লাবের সদস্য, স্থানীয় বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীসহ এলাকার কয়েকশ নারী-পুরুষ অংশ গ্রহণ করেন।

এসময় বক্তব্য রাখেন দৌলতদিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুর রহমান মন্ডল, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সম্পাদক ফকীর আমজাদ হোসেন, মুক্তি মহিলা সমিতির নির্বাহী পরিচালক মর্জিনা বেগম, প্রকল্প কর্মকর্তা আতাউর রহমান, নিখোঁজ লিলি বেগমের ভাগ্নি জামাই মুরাদ হোসেন, পায়াক্ট বাংলাদেশ এর দৌলতদিয়া শাখার ব্যবস্থাপক মজিবর রহমান জুয়েল, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিনিধি সাজ্জাদ হোসেন, লিলি বেগমের বাড়ির ভাড়াটিয়া কুমলী বেগম, রুমা আক্তার, চাইল্ড ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আলামীন বেপারী, সেক্সওয়াকার নেটয়ার্ক বাংলাদেশ এর কোষাধ্যক্ষ ফরিদা পারভীন, এনজিও কর্মী আখি আক্তার প্রমূখ।

মুক্তি মহিলা সমিতির নির্বাহী পরিচালক মর্জিনা বেগম আবেগভরা কণ্ঠে বলেন, বহু বছর ধরে আমরা পূর্বপাড়া নারী ও শিশুর অধিকার আদায়ে আন্দোলন সংগ্রাম করেছি। তিনি শিশুদের অধিকার আদায় নিয়েও কাজ করতেন। তার শূন্যতা এখন কিভাবে পূরন করবো? এক মাস পার হয়ে গেল অথচ এখন পর্যন্ত কোন হদিস পাচ্ছিনা।

দৌলতদিয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুর রহমান মন্ডল বলেন, প্রশাসনের কাজ হলো তাকে খুঁজে বের করা। তার মোবাইলের লোকেশন দৌলতদিয়া দেখাচ্ছে। তাহলে সে কোথায় আছে, কে, কারা কোথায় রাখা হয়েছে বের করতে দেরি হচ্ছে কেন। প্রশাসন এমন কোন কাজ নাই করতে পারেনা। আশা করি পুলিশ তাকে খুঁজে বের করে রহস্য উদঘাটন করে পদক্ষেপ নিবেন।

স্থানীয়রা জানান, ১০নভেম্বর দুপুরে পূর্বপাড়ার বাড়ি থেকে ১০০গজ দূরে কথিত স্বামী সামছু মাষ্টার পাড়ার বাসিন্দা, ইউনিয়ন যুবলীগের সহসভাপতি লতিফ শেখের বাড়ীতে দাওয়াত খাওয়ার কথা বলে বের হন। আত্মীয় স্বজনের বাড়ীসহ সম্ভাব্য সব জায়গায় খোঁজ নিয়ে পাওয়া যায়নি। পরদিন তাঁর ভাগ্নে জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার পূর্বআমখাওয়া গ্রামের মিরাজুল হকের ছেলে শাফি ইসলাম গোয়ালন্দ থানায় সাধারণ ডায়রি করেন। মুক্তি মহিলা সমিতির পক্ষ থেকেও ১৫ নভেম্বর জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার এবং গোয়ালন্দ ঘাট থানার ওসিকে অবগত করেন।

গোয়ালন্দ ঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল তায়াবীর জানান, মুঠোফোনের কললিস্ট নিয়ে কাজ করে কোথাও নিখোঁজ হওয়ার মতো উপদান বা আলামত পাইনি। এরপরও বাদীপক্ষের সন্দেহজনক স্থানে খোঁজ খবর নেওয়া হয়েছে, তাতেও হদিস মেলেনি। আমরা লিলি বেগম উদ্ধারে সর্বাত্মকভাবে চেষ্টা করে যাচ্ছি।

শেয়ার করুনঃ

এই জাতীয় আরোও সংবাদ...
Copyright 2022 | Mys-tv.com
Ghorbaree Wala - ghorbareewala. Ghorbaree Wala
themesba-lates1749691102