June 27, 2022, 1:50 pm

দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌপথঃ কুয়াশায় দুই দিনে সাড়ে ১৪ ঘন্টা ফেরি চলেনি, দুই দিন পর ফেরি পাচ্ছে পণ্যবাহি গাড়ি

সাংবাদিক বামঃ
  • পোস্ট হয়েছেঃ শুক্রবার, ডিসেম্বর ২৪, ২০২১
  • 40 পড়া হয়েছেঃ

নিজস্ব প্রতিবেদক, গোয়ালন্দঃ ঘন কুয়াশায় রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া ও মানিকগঞ্জের পাটুরিয়া নৌপথে সাড়ে ১৪ ঘন্টার মতো ফেরি চলাচল বন্ধ ছিল। বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত আড়াইটায় বন্ধ হয়ে শুক্রবার সকাল ৭টার দিকে ফেরি চলাচল শুরু হয়।

এর আগে গত বুধবার দিবাগত রাত ১২ টা থেকে পরদিন বৃহস্পতিবার সকাল ১০টা পর্যন্ত ১০ঘন্টার মতো ফেরি বন্ধ ছিল। প্রয়োজনের তুলনায় ফেরি সংখ্যা অনেক কম থাকায় যানবাহন পারাপার ব্যাহত হচ্ছে। এতে দৌলতদিয়া এবং পাটুরিয়া ঘাটে আটকা পড়ছে শত শত গাড়ি। শুক্রবার দৌলতদিয়া প্রান্তে চার কিলোমিটার লম্বা লাইনে পাঁচ শতাধিক পণ্যবাহি গাড়ি, যাত্রীবাহি বাস ও ছোট গাড়ি ছিল।

বিআইডব্লিউচিসি দৌলতদিয়া কার্যালয় জানায়, বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে দ্বিতীয় দিনের মতো পদ্মা নদী অববাহিকায় কুয়াশা পড়তে থাকে। রাত বাড়ার সাথে কুয়াশার তীব্রতা বাড়তে থাকলে এক পর্যায়ে দুর্ঘটনা এড়াতে আড়াইটা থেকে ফেরি বন্ধ করে দেয়। প্রায় সাড়ে ৪ ঘন্টা পর শুক্রবার সকাল ৭টার দিকে কুয়াশা কেটে গেলে পুনরায় ফেরি চালু হয়।

এদিকে আজ শুক্রবার ছুটির দিন হওয়ায় মাইক্রোবাস, প্রাইভেটকারের মতো অসংখ্য ছোট গাড়ির চাপ পড়েছে। সাধারণ পণ্যবাহি গাড়ি দুই-তিন দিন ধরে আটকে থাকায় দুর্ভোগের মাত্রা চরম আকার ধারণ করেছে।

বরিশাল থেকে লোহার কুচি বোঝাই করে চালক আব্দুর রহিম সাভার আমিনবাজারের উদ্দ্যেশ্যে গত মঙ্গলবার (২১ ডিসেম্বর) রাতে ছেড়ে আসেন। শুক্রবার দুপুরে চালক আব্দুর রহিম দৌলতদিয়া ৫ নম্বর ফেরি ঘাট সড়কে থাকা অবস্থায় বলেন, “আমরা মানুষের বাচ্চা না। তিনদিন ধরে রাস্তায় পড়ে আছি। কালো কাচের গাড়িতে যারা বসে থাকেন, তারাই মানুষ। ঘাটে আসলে দ্রুত ফেরিতে ওঠার সুযোগ পায়। অথচ আমরা খেয়ে না খেয়ে পড়ে আছি”।

যশোর বেনাপোল থাকা আসা পন্যবাহি ট্রাক চালক আইয়ুব আলী বলেন, “গত বুধবার থেকে ৫২ ঘন্টা ধরে রাস্তায় পড়ে আছি। এখন আর শরীরে কুলাচ্ছে না। এখন ঘাট পাড়ি দিতে পারলেই বাঁচি”।

এদিকে দৌলতদিয়া ঘাটে যানজট থাকায় দক্ষিণাল থেকে আসা ঢাকামুখী পরিবহনের যাত্রীরা বাস থেকে নেমে বিকল্প উপায়ে নদী পাড়ি দিয়ে চলে যাচ্ছে। আবার যানজট সামলাতে লঞ্চ পারাপার অনেক গাড়ি ঘাট থেকে প্রায় এক-দেড় কিলোমিটার আগেই পুলিশ আটকে দিচ্ছে। যাত্রীদেরকে দীর্ঘপথ পায়ে হেটে ঘাটে পৌছতে হচ্ছে।

ফরিদপুর থেকে আসা গোল্ডেন লাইন পরিবহনের ঘাট তত্বাবধায়ক আবু কালাম বলেন, এটা এক ধরনের জুলুম হচ্ছে। ঘাট থেকে এতদুর নামিয়ে দিলে মানুষ কিভাবে ঘাটে পৌছবে। পুলিশ অহেতুক ভোগান্তিতে ফেলছে। এ বিষয়ে আমরা পুলিশ সুপারের কাছে যাব।

বিআইডব্লিউটিসি দৌলতদিয়া কার্যালয়ের ব্যবস্থাপক জামাল হোসাইন বলেন, বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে কুয়াশার কবলে ভাষা সৈনিক গোলাম মাওলা ও বীরশ্রেষ্ঠ জাহাঙ্গীর নামক দুটিটি বড় ফেরি আটকা পড়ে। একদিকে প্রয়োজনের তুলনায় ফেরি সংকট রয়েছে। সাথে দুই দিন ধরে রাতে কুয়াশায় ফেরি বন্ধ থাকায় যানবাহন পারাপার ব্যাহত হওয়ায় উভয় ঘাটে আটকা পড়ে শত শত গাড়ি।

শেয়ার করুনঃ

এই জাতীয় আরোও সংবাদ...
Copyright 2022 | Mys-tv.com
Ghorbaree Wala - ghorbareewala. Ghorbaree Wala
themesba-lates1749691102